ভুলেও হোয়াটসঅ্যাপে যে ৯টি কাজ করবেন না!

বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়তম মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp)। সারাবিশ্বে আনুমানিক ২ বিলিয়নেরও বেশ ব্যবহারকারী রয়েছে এবং মার্কিন প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজন হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন। বাংলাদেশেও সমান জনপ্রিয় মেটা (Meta)’র এই মেসেজিং অ্যাপ। ১৮০টিরও বেশি দেশে এবং ৬০টি ভিন্ন ভাষায় পাওয়া যায় হোয়াটসঅ্যাপ।
এই বিপুল পরিমাণ গ্রাহকের হাত থেকে প্ল্যাটফর্মকে সুরক্ষিত রাখতে নিয়মিত পদক্ষেপ নেয় মার্কিন কোম্পানিটি। প্রায় প্রতি মাসেই হোয়াটসঅ্যাপে বিপুল পরিমাণ অ্যাকাউন্ট ব্যান বা নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। হোয়াটসঅ্যাপের তরফে জানানো হয়েছে, “কোন গ্রাহক অ্যাপ ব্যবহারের শর্তাবলী লঙ্ঘন করলে সেই গ্রাহককে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। কোন রকম সতর্কতা না জানিয়েই এই কাজ হতে পারে।” এমন অনেকগুলি জিনিস রয়েছে যার কারণে আপনি এই প্ল্যাটফর্মে নিষিদ্ধ হতে পারেন। কী কী কাজ করলে হোয়াটসঅ্যাপে আপনার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ হতে পারে জানেন?
দেখে নিন নয়টি কারণ:

হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ভাইরাস অথবা ম্যালওয়্যার পাঠালে
হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজের মাধ্যমে যদি এমন কোন ফাইল শেয়ার করেন যে ফাইলের মধ্যে ম্যালওয়্যার রয়েছে তবে আপনার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করে দেবে হোয়াটসঅ্যাপ। এই ধরনের ফাইল পাঠিয়ে অন্যের ক্ষতি করার আগে দ্বিতীয়বার ভাবুন।

অজানা নম্বরে মেসেজ অথবা ফোন নম্বর শেয়ার
সম্মতি ছাড়া কোন ব্যক্তির ফোন নম্বর হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে শেয়ার করবেন না। এছাড়াও অবৈধ উৎস থেকে প্রাপ্ত ডেটা হোয়াটসঅ্যাপে ব্যবহারকারীদের মেসেজ করতে বা গ্রুপে যুক্ত করতে ব্যবহার করবেন না। এই কাজ করলেও আপনার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করতে পারে হোয়াটসঅ্যাপ।

অটোমেটেড বাল্ক মেসেজ
হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে বাল্ক মেসেজ পাঠাবেন না। এছাড়াও অটোমেটেড মেসেজ পাঠানোর জন্য হোয়াটসঅ্যাপ কে ব্যবহার করবেন না। এই দুই কাজ করলেই আপনাকে হোয়াটসঅ্যাপ থেকে নিষিদ্ধ করা হতে পারে।

অবৈধ উপায়ে অ্যাকাউন্ট তৈরি
অবৈধ উপায়ে অ্যাকাউন্ট অথবা গ্রুপ তৈরি করলে হোয়াটসঅ্যাপ আপনার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করতে পারে। একাধিক গ্রুপ তৈরি করার জন্য যে সব অনলাইন টুল রয়েছে সেগুলি ব্যবহার এড়িয়ে চলুন।

ব্রডকাস্ট লিস্টের অতিরিক্ত ব্যবহার
হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের নিয়ম অনুযায়ী নিয়মিত ব্রডকাস্ট লিস্টের মাধ্যমে মেসেজ পাঠালে আপনার মেসেজ রিপোর্ট করা হতে পারে। একাধিকবার আপনার মেসেজে রিপোর্ট জমা পড়লে অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ হতে পারে।

অবাঞ্ছিত মেসেজ পাঠানো
হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের শর্তাবলী অনুযায়ী কোন ব্যক্তি আপনাকে মেসেজ না করার অনুরোধ করার পরেও আপনি মেসেজ করা চালিয়ে গেলে আপনার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ হতে পারে। এই জন্য অপর ব্যক্তিকে আপনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করতে হবে।

অ্যাপ কোড বদলের চেষ্টা
হোয়াটসঅ্যাপের অ্যাপ কোড বদল করার চেষ্টা করলে আপনার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ ঘোষণা করবে হোয়াটসঅ্যাপ।

​GB WhatsApp অথবা WhatsApp Plus ব্যবহার
WhatsApp Plus অথবা GB WhatsApp এর মতো থার্ড পার্টি ক্লায়েন্ট ব্যবহার করলে আপনার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করতে পারে হোয়াটসঅ্যাপ। হোয়াটসঅ্যাপের ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে, “WhatsApp Plus অ্যাপ কোন ভাবেই WhatsApp এর তৈরি করা নয়। হোয়াটসঅ্যাপ কোন ভাবেই এই অ্যাপের সঙ্গে যুক্ত নয়। WhatsApp Plus এর ডেভেলপারদের সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপের কোন যোগাযোগ নেই। এই অ্যাপে কোন রকম সাপোর্ট আপরা দিই না।

ভুয়ো অ্যাকাউন্ট
হোয়াটসঅ্যাপে অন্যের নাম ও ছবি ব্যবহার করে ভুয়ো বা ফেক অ্যাকাউন্ট তৈরি করলেও আপনার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ হতে পারে। অনেক সময় এই ধরনের অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে প্রতারণার কাজ চলতে থাকে।

You May Also Like

About the Author: Shams Biswas

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.