ইন্টারভিউ অ্যাটিচিউড

ইন্টারভিউ অ্যাটিচিউড

ইন্টারভিউ বোর্ডে যোগ্যতার সাথে সাথে অ্যাটিচিউড প্রকাশ করাও বিশেষ জরুরি। কারণ, ইন্টারভিউ একেবারে যেন ভাগ্য নির্ধারণের দিন। এ দিন ভালো করতে পারলে মিলে যাবে কাঙ্ক্ষিত চাকরিটা। তাই, ইন্টারভিউতে নিজের সেরাটা। এ দিন থাকা চাই ফিটফাট। পোশাকে শুধু নয়, প্রকাশভঙ্গীতে থাকা চাই স্মার্টনেস। ব্যক্তিত্বে প্রকাশ পাওয়া চাই আত্মবিশ্বাস। তবেই যেন আসবে সফলতা।

জেনে নিই কেমন হবে ইন্টারভিউ অ্যাটিচিউড:

এক্সট্রোভার্ট অ্যাটিচিউড
ইন্টারভিউতে এক্সট্রোভার্ট বা বহির্মুখী ব্যক্তিত্বের মানুষেরা নিয়োগকর্তার বেশী নজর কাড়ে। কারণ, ইন্ট্রোভার্ট বা অন্তর্মুখী মনে অনেকের কাছে লাজুক, ক্লায়েন্টের সাথে ডিলিংয়ে পিছিয়ে পড়া, সহকর্মীর সাথে মানিয়ে চলতে না পারা সমস্যাসঙ্কুল ব্যক্তি। নিয়োগকর্তা সবসময় এমন একজন ব্যক্তিকে তাদের কোম্পানির জন্য বেছে নিতে চান যিনি এক্সট্রোভার্ট বা বহির্মুখী ব্যক্তিত্বের সঙ্গে সঙ্গে দায়িত্বশীল ও দক্ষ।

স্মার্ট অ্যাটিচিউড
নিয়োগকর্তা সব সময় সেরা প্রার্থী বেছে নিতে চান। এ জন্য আবেদনকারীকে অবশ্যই স্মার্ট হতেই হবে। স্মার্টের কোন বিকল্প নেই। শুধু পোশাকে স্মার্ট হতে হবে তা নয়। চুল আঁচড়ানো থেকে শুরু করে পায়ের জুতা পর্যন্ত সবেতে চাই স্মার্টনেসের ঝলক। কথার উচ্চারণে আঞ্চলিকতা এড়িয়ে শুদ্ধ বাংলা বলুন। ইন্টারভিউ বোর্ডে অশুদ্ধ উচ্চারণ খুব বাজে ইম্প্রেশন তৈরি করে। চোখে মুখে থাকুক বুদ্ধির সুস্পষ্ট ছাপ।

সিরিয়াস অ্যাটিচিউড
আপনি এই ইন্টারভিউতে নিজেকে যোগ্য করতে পারলে কাঙ্ক্ষিত চাকরিটা পেয়ে যাবেন। আপনি যে আপনার ক্যারিয়ারের ব্যাপারে প্রচণ্ড রকম সিরিয়াস সেটা আপনার আচরণে প্রকাশ করতে হবে। চাকরিটা আপনার শুধু দরকার নয়, এটা আপনার প্যাশন। আপনার মাঝে আছে পেশাদারিত্ব এবং প্রতিষ্ঠানের প্রতি নিষ্ঠা ও শ্রদ্ধা, এই অ্যাটিচিউড নিঃসন্দেহে মুগ্ধ করবে বোর্ডের সবাইকে। তাই স্মার্টের সাথে সাথে হতে হবে ক্লাসি। রাখতে হবে সিরিয়াসনেস।

ম্যানেজেবল অ্যাটিচিউড
ইন্টারভিউ তে অনেক ইন্টারভিউয়াররা বিব্রতকর প্রশ্ন করে। আপনার দায়িত্ব হবে এই সব বিব্রতকর প্রশ্নে উত্তর সুকৌশলে দেওয়া। আসলে, এই প্রশ্নগুলো করাই হয় যাতে পরীক্ষা করা যায় আপনি অপ্রত্যাশিত প্রতিকূল পরিস্থিতি কতটা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। কারণ চাকরি জীবনে আপনাকে অনেক কঠিন প্রতিকূল পরিস্থিতি ম্যানেজ করতে হবে। তাই ইন্টারভিউ তে প্রমাণ করে দিন আপনার সেই স্কিল আছে। ধরে রাখুন আত্মবিশ্বাস দেখিয়ে দিন ম্যানেজেবল অ্যাটিচিউড।

ওবিডিয়েন্ট অ্যাটিচিউড
নিয়োগ কর্তা অন্যান্য স্কিলের সঙ্গে সঙ্গে প্রার্থীর মাঝে খুঁজে কমিটমেন্ট। আবেদনকারী আত্মবিশ্বাসী হবেন, এর সঙ্গে সঙ্গে কিন্তু অনুগতও হতে হবে। ভেবে দেখুন, আপনি যদি ম্যানেজমেন্টে থাকেন আপনি নিশ্চয়ই ঔদ্ধত্য পছন্দ করবে না। তাই ইন্টারভিউতে প্রতিটি পদক্ষেপে আনুগত্য প্রকাশ করুন। ইন্টারভিউ রুমে প্রবেশের সময় অনুমতি নিয়ে প্রবেশ করুন। বসার আগে অনুমতি নিন। প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দিন বিনয়ের সাঙ্গে। ধন্যবাদ জানান। প্রতিষ্ঠানের প্রশংসা করুন। এই প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে পারলে আপনি খুশী হবেন সেটাও প্রকাশ করুন। চাকরি আপনার নিশ্চিত।

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close Menu